Skip to content

আমি মোটা হবো কিভাবে

    আমি মোটা হবো কিভাবে এই প্রশ্ন অনেকেই করে থাকেন, তবে যারা মোটা হয়েছেন বা আছেন তাদেরও রয়েছে বিপরীত প্রশ্ন আমি চিকন হবো কিভাবে? তু যারা একটু বেশি চিকন দেখতে রোগা মনে হয় তারা বিভিন্ন ভাবে চেষ্টা করেন একটু মোটা হয়ে নিজেকে স্মার্ট দেখানোর, এবং অনেকে স্থায়ী মোটা হওয়ার ঔষধ এর নামও জানতে চান। তবে কিছু নিয়মকানুন না মানার কারণে তারা মোটা হন না। 

    আপনি চকন বা রোগা হওয়ার পিছনে অনেক কারণ থাকতে পারে, যেমন আপনার শরীরে যদি জটিল কোন রোগ থাকে তাহলে আপনি যতই চেষ্টা করুন না কেন কখনো মোটা হতে পারবেন না। এছাড়াও আপনি যদি পুরপুরি সুস্তও হন তাহলেও কিছু কারণে মোটা না হতে পারেন।

    যেসব কারণে আপনি মোটা হচ্ছেন না | আমি মোটা হবো কিভাবে

    আমি মোটা হবো কিভাবে প্রশ্ন করা মানুষ গুলো মোটা না হওয়ার পিছনে তারা নিজেরাই দায়ি এটা অনেকে জানেন না। যেমন আপনি যদি ঠিকমত না গুমান, প্রতিবেলা খাবার ঠিকমত না খান এবং পুষ্টিকর খাবার না খান, পর্যাপ্ত পরিমানে পানি পান না করেন, যদি আপনার অতিরিক্ত দুশ্চিন্তা থাকে, এবং আপনি যদি কোন কাজকর্ম না করেন তাহলেও মোটা হবেনা। 

    মোটা হওয়ার উপায়

    মোটা হতে হলে আপনাকে প্রথমে নিশ্চিত হতে হবে আপনার শরিলে কোন জটিল রোগ নেই, তারপর আপনাকে এই চয়টি বিষয় মেনে চলতে হবে, তাহলে আপনি প্রতিমাসে ১-২ কেজি করে ওজন বাড়াতে পারবেন। 

    তবে অনেকে আছেন মাত্র সাত দিনে মোটা হওয়ার উপায় জানতে চান, তাদের একটা কথাই বলব ৭ দিনে মোটা হওয়ার সহজ উপায় বলতে কোন প্রাকৃতিক উপায় নেই, আপনি যদি বিভিন্ন হারবাল বা অন্য কোন ওষধ খেয়ে মোটা হয়েও যান তাহলে এই মোটা হওয়ার জন্য আপনার পরিবর্তী পুর জীবন পস্তাতে হবে, এই ওষধ গুলো আপনার সুন্দর জীবন নষ্ট করে দেওয়ার ক্ষমতা রাখে। 

    মোটা হওয়ার উপায় গুলো হলোঃ 

    প্রতিবেলা খাবারের সময় ঠিক করতে হবে।
    খাবারের পরিমান ঠিক করতে হবে। 
    পরিমান মত পানি পান করতে হবে।
    দুশ্চিন্তা মুক্ত থাকতে হবে। 
    রাতে পর্যাপ্ত পরিমানে গুমাতে হবে।
    শারীরিক কাজকর্ম করতে হবে। 

    মোটা হওয়ার উপায় সম্পর্কে বিস্তারিত

    প্রতিবেলা খাবারের সময় নির্ধারণ

    মোটা হতে হলে অবশ্যই আপনার খাবার খাওয়া প্রয়োজন আর সেই খাবারটাও খেতে ঠিক সময় মত। অনেকেই আছেন যারা সকালে নাস্তা করার পর দুপুরের খাবার খাওয়ার সময় পান না বা খাওয়ার কোন খেয়াল থাকেনা। 

    মোটা হওয়ার জন্য অবশ্যই আপনার এই খাদ্যাভ্যাস পরিবর্তন করতে হবে, এবং ঠিক সময় মত প্রতিদিন একি সময়ে খাবার গ্রহন করতে হবে। যেমন আপনি সকাল ৯ টায় গুম থেকে নাস্তা করলেন এবং দুপুর ২ টায় লাঞ্চ করলেন, আর রাতের খাবার খেলেন ৯ টায়। ঠিক এইরকম প্রতিদিন একি সময়ে খাবার খেতে হবে। 

    পরিমান মত খাবার খাওয়া

    মোটা হওয়ার জন্য আপনি কি খাচ্ছেন এবং কি পরিমানে খাচ্ছেন এটাও একটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয়। অনেকে মনে করেন মোটা হতে হলে অনেক বেশি পরিমানে খাবার খেতে হবে আর এই জন্য অনেকেই বেশি পরিমানে খাবার খান। তবে এই ধারণাটি ভুল। 

    মোটা হওয়ার জন্য অতিরিক্ত বেশি খাবার খাওয়ার প্রয়োজন নেই, তবে লক্ষ্য রাখতে হবে আপনি যেসব খাবার খাচ্ছেন সেগুলো পুষ্টিকর কি না, এবং সেই খাবার গুলোতে যথেষ্ট পরিমান ক্যালরি রয়েছে কিনা। কারণ মোটা হওয়ার জন্য খাবারে ক্যালরি থাকা গুরুত্বপূর্ণ। 

    পরিমান মত পানি পান

    মোটা হতে শরীরে পানির গুরুত্ব অপরিসীম, তাই প্রতিদিন সঠিক পরিমানে পানি পান করাও জরুরী। একজন প্রাপ্ত বয়স্ক মানুষের প্রতিদিন ২ থেকে ৩ লিটার পানি খাওয়া জরুরী। শরীর সুস্ত রাখতে সাহায্য করে পানি আর শরীর সুস্ত থাকলেই আপনি মোটা হবেন। 

    দুশ্চিন্তা মুক্ত থাকা

    দুশ্চিন্তা এমন একটি রোগ যা আপনাকে তিলে তিলে বিতর থেকে শেষ করে দিবে, কোন কাজ সঠিক ভাবে করতে পারবেন না এবং আপনার শরীরকে সঠিক ভাবে গড়ে উঠতে বাদা প্রধান করবে। তাই মোটা হওয়ার জন্য দুশ্চিন্তা মুক্ত থাকতে হবে। 

    পর্যাপ্ত পরিমানে গুমানো

    গুম মানুষের শরীরের জন্য খুব উপকারি এবং দরকারি একটি পক্রিয়া, আপনি যদি পর্যাপ্ত পরিমান সময় না গুমান তাহলে আপনার শরীর দিনে দিনে আরও ব্যাঙতে শুরু করবে কোন ভাবেই ঠিক থাকতে পারবেন না। একটি ভাবে আপনি যদি পর্যাপ্ত সময় না গুমান তাহলে আপনার শরীর মোটা হওয়ার সময় টুকুও পাবে না। 

    শারীরিক কাজকর্ম করা

    শুধু গুমিয়ে থাকলে বা বসে থাকলে আপনি মোটা হবেন না, যদি হয়েও থাকেন তাহলে এই স্বাস্থ্য আপনার জন্য ক্ষতিকর হয়ে উঠবে। তাই আমাদের প্রতিদিন কিছুনা কিছু করা জরুরী। এতে আমাদের শরীর সুস্থ থাকে এবং মোটা হতেও সাহায্য করে। 

    উপসংহার

    আমি মোটা হবো কিভাবে – সম্পর্কে আমরা বিস্তারিত আলোচনা করেছি। আপনি যদি মোটা হতে চান তাহলে অবশ্যই আমাদের এই পোষ্টে উল্লেখ করা ছয়টি নিয়ম মানতে হবে। আপনি যদি এই ছয়টি নিয়ম মানতে পারেন তাহলে প্রতিমাসে আপনার ১-৩ কেজি ওজন বাড়বে এবং ৬ মাসের মধ্যে আপনার ওজন একটা ভালো পর্যায়ে যাবে ইন-শা-আল্লাহ। 

    সাত দিনে মোটা হওয়ার উপায়

    সাত দিনে মোটা হওয়ার কোন উপায় নেই, থাকলেও সেগুলো হয় হারবাল বা অন্যান্য ক্ষতিকন ওষধ সেবনের মাধ্যমে। ক্ষতিকারক ওষধ সেবন করে আপনি হয়তো অস্থায়ী সময়ের জন্য মোটা হবেন কিন্তু পরবর্তী সময়ে এর জন্য আপনাকে অনেক সমস্যায় পরতে হতে পারে। শেষ কথা এটাই যে সাত দিনে মোটা হওয়ার কোন ভালো উপায় নেই এবং আপনি কখনো ওষধ খেয়ে মোটা হওয়ার চেষ্টা করবেন না। এতে আপনার ক্ষতিটাই বেশি হবে।

    মোটা ও লম্বা হওয়ার ঔষধ, স্থায়ী মোটা হওয়ার ঔষধ

    ওষধ খেয়ে মোটা হওয়া যায় একথা সত্য তবে একথা সত্য যে ওষধ খেয়ে মোটা হলে পরবর্তীতে অনেক বেশি শারীরিক সমস্যায় পরতে হয়, তাই আমরা আপনাদের মোটা হওয়ার জন্য কোন ঔষধ এর নাম বলতে পারছিনা।

    ঔষধ খেয়ে কোন ভাবে মোটা হওয়া গেলেও, আজ পর্যন্ত কোন ঔষধ তৈরি হয়নি যেটা খেয়ে লম্বা হওয়া যাবে, যেসকল মানুষ লম্বা হওয়ার ঔষধ বিক্রি করে তারা পতারনা করছে। সুস্থ ভাবে মোটা ও লম্বা হওয়ার কোন ঔষধ নেই। তাই এসব থেকে দূরে থাকুন।

    সকালে খালি পেটে কি খেলে মোটা হওয়া যায়

    সকালে খালি পেটে কি খেলে মোটা হওয়া যায় এই প্রশ্ন রয়েছে অনেকের, সুস্থ থাকার জন্য এবং শারীরিক শক্তি বৃদ্ধি করার জন্য আপনি সকালে খালি পেতে বাদাম, কিশমিশ, খেজুর এবং গরম পানি খেতে পারেন। এতে করে আপনার শরিল যেমন সুস্থ থাকবে তেমনি ভাবে আপনাকে মোটা করতেও সাহায্য করবে।

    x